বাংলাদেশি পোশাক শিল্পের নিজস্ব ব্র্যান্ড প্রতিষ্ঠা এবং বিদেশে বিক্রয় বিষয়ক কর্মশালা

ব্র্যান্ড প্রতিষ্ঠা

বাংলাদেশের পোশাক শিল্পের উন্নয়ন এবং কিভাবে পোশাক ব্র্যান্ডের বিকাশ ঘটানো সম্ভব এই লক্ষ্যে Bangladesh Apparel Exchange (বি এ ই) বেসরকারি উদ্যোগে একটি কর্মশালার আয়োজন করতে  যাচ্ছে ।

আগামি ২৯ জুলাই ঢাকার হোটেল গার্ডেনিয়ায় দিনব্যাপী একটি কর্মশালার আয়োজন করা হচ্ছে যার বিষয় হল কিভাবে পোশাক শিল্পে নিজস্ব ব্র্যান্ড  তৈরি করা যায় এবং ইউরোপ ও আমেরিকার  ভোক্তাদের সাথে সরাসরি যোগাযোগ করা যায় ।

এই কর্মশালার মূল লক্ষ্য হল কিভাবে দেশের পোশাক শিল্পকে দেশীয় বাজারে ডিজাইন এর মাধ্যমে  আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডে রুপান্তরিত করে ইউরোপ এর ভোক্তাদের কাছে সরাসরি বিক্রয় করা যায় । মূলত এর  মাধ্যমে কিভাবে পরবর্তী প্রবৃদ্ধি বৃদ্ধি সম্ভব সেই লক্ষ্যেই এই কর্মশালার আয়োজন করা হচ্ছে ।

কর্মশালায় অংশগ্রহণ করে একজন উদ্যোক্তা বিশ্বব্যাপী বিখ্যাত ব্র্যান্ড সম্পর্কে ধারনা এবং কিভাবে ডিজাইন করা হয় এই অন্তর্দৃষ্টি জ্ঞান অর্জন করতে সক্ষম হবে । এই কর্মশালা পোশাক শিল্পে নিজস্ব ব্র্যান্ড তৈরি করে তা ই-কমার্স এর মাধ্যমে সরাসরি ভোক্তাদের কাছে বিক্রয় করতে সহায়তা করবে ।

বি এ ই এর প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তাফিজ উদ্দিন বলেন “বাংলাদেশ বিশ্বের ২য় বৃহত্তম পোশাক রপ্তানিকারক দেশ । Zara, H&M, Marks & Spencer, Gap এর মত বিশ্বের প্রায় সকল নামীদামী পোশাক বিক্রয়কারী প্রতিষ্ঠানের জন্য মানসম্মত পোশাক উৎপাদনকারী দেশ হিসেবে  বাংলাদেশের সুখ্যাতি রয়েছে । বিশ্বের ২য় বৃহত্তম পোশাক রপ্তানিকারক দেশ হওয়া সত্ত্বেও বাংলাদেশে  এখনও বিশ্বমানের ভাল ব্র্যান্ড গড়ে উঠেনি” ।

মোস্তাফিজ উদ্দিন বলেন, “ সকল দিক বিবেচনা করে উদ্যোক্তা,ফ্যাশন প্রার্থী এবং প্রত্যেকের   নিজস্ব  ব্র্যান্ড তৈরির স্বপ্ন বাস্তবায়নে বি এ ই জ্ঞান এবং উপদেশ শেয়ারের উদ্যোগ গ্রহন করেছে” ।

শিল্প অভ্যন্তরীণ এবং বিশেষজ্ঞদের মতে বাংলাদেশ যদি নিজস্ব বিশ্বমানের ব্র্যান্ড প্রতিষ্ঠা করতে পারে তাহলে পোশাক শিল্পে রপ্তানি আয় বহুগুনে বৃদ্ধি পাবে যা দেশীয় অর্থনীতিতে বড় ধরনের প্রভাব ফেলবে ।

এই কর্মশালা একজন উদ্যোক্তাকে অন্তর্দৃষ্টি  দিয়ে নিজস্ব ব্র্যান্ড তৈরি করে তা সরাসরি পশ্চিমাদেশের বিক্রেতা এবং ভোক্তাদের কাছে বিক্রয় করতে সাহায্য করবে ।

চলতি অর্থবছরে পোশাক শিল্পে রপ্তানি আয় ০.২০% বৃদ্ধি পেয়ে $২৮.১৫% বিলিয়নে দাঁড়িয়েছে যা গত দেড় দশকে সর্বনিম্ন ।

যদিও বাংলাদেশের সামগ্রিক রপ্তানি আরও $৩৪.২৫ বিলিয়ন থেকে $৩৪.৮৩ বিলিয়ন এ দাঁড়িয়েছে যা গত বছরের তুলনায় ১.৬৮% বেশি ।

মোস্তাফিজ বলেন, “এ অবস্থায় বাংলাদেশকে অবকাঠামোগত রপ্তানি প্রবৃদ্ধি থেকে বের হয়ে আসার জন্য উচ্চমানের পণ্যগুলোর উপর দৃষ্টি আরোপ করতে হবে” ।

জনাব মোস্তাফিজ ১৯৯৯ সাল থেকে তার প্রতিষ্ঠিত ব্র্যান্ডকে সাফল্যের সাথে ইউরোপের বাজারে রপ্তানি করে আসছেন ।

তিনি আরও বলেন “আমি মনে করি এই কর্মশালা তৈরি পোশাক শিল্পের সাথে সংশ্লিষ্ট লোকজনকে পণ্যের নিজস্ব ব্র্যান্ড তৈরি করে ভাল দাম পেতে সাহায্য করবে” ।

আগ্রহী ব্যক্তিগণ নিবন্ধনের মাধ্যমে এই কর্মশালায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন ।

http://bangladeshapparelexchange.com/product/ticket-build-your-own-brand-seminar.

 

উৎসঃ বিএই   

 

Leave a Reply

*